মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সলিডারিটি
http://www.kurigram.gov.bd/sites/default/files/files/www.kurigram.gov.bd/field_office/ab2fe8aa_192f_11e7_83d4_286ed488c766/2012-06-02 11.38.46.jpg

 ১৯৯১ সালে ২রা জুলাই বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করে ১৯৯২ সালের ১৪ই জানুয়ারী এ উন্নয়ন সংগঠনটি আত্নপ্রকাশ করেছে। পরবর্তীকালে ১০ই জুন ১৯৯২ ইং তারিখে সমাজ সেবা অধিদপ্তর এবং ২১শে জুলাই১৯৯৭ ইং তারিখে এনজিও বিষয়ক ব্যুরো থেকে রেজিষ্ট্রেশন এবং ২০০২ সালে উক্ত রেজিষ্ট্রেশন নবায়ন প্রাপ্ত হয়ে কার্যক্রম পরিচারনা করছে। সংস্থা কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন ধরণের কর্মসূচীর সকল প্রচেষ্টা মানব জীবনের সর্বক্ষেত্রে সংহতি প্রদানের লক্ষ্যে পরিচালিত হচ্ছে। সলিডারিটির পদযাত্রায় প্রতিকুলতা সাফল্য দুটোই রয়েছে। এক্ষেত্রে ১৯৯৮ সালে শিক্ষা কার্যক্রমের জন্য ১৯৯৯ সালের ২২শে জুলাই রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি একটি স্মরণীয় ঘটনা।

এক নজরে সলিডারিটি।

৬.             সংস্থার ধরণ              ঃ            অরাজনৈতিক ও অলাভজনক স্থানীয় বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী উন্নয়ন সংস্থা।

৭.             সংস্থা প্রতিষ্ঠার সময় কালঃ            ১৪ই জানুয়ারী ১৯৯২ ইং

৮.             নিবন্ধন তথ্য              ঃ            ক)   সমাজ সেবা অধিদপ্তর, কুড়িগ্রাম নং: ২৩৩/৯২-তারিখঃ ১০.০৬.১৯৯২ ইং

                                             খ)    এনজিও বিষয়ক ব্যুরো, ঢাকা নং: ১১৭৩/৯৭-তারিখঃ ২১.০৭.১৯৯৭ ই

    প্রতীক (মনোগ্রাম)        ঃ  ক)         মনোগ্রাম: প্রায় বস্ত্রহীন অসহায় ক্ষুধার্ত শিশু, মুখে বেদনার অভিব্যক্তি প্রকাশ ও

                দুগ্ধপানরত অবস্থায় মনের আনন্দে দুটি ডানা মেলে আকাশে উড়তে থাকবে।

L)   পতাকা: দৈর্ঘঃপ্রস্থ ৩:২ আকারের ৫ রঙের পতাকা (রঙ ক্রম উপর থেকে সাদা,

সবুজ, গোলাপী, হলুদ ও লাল) এবং ধারক দন্ডের পাশে প্রতি রঙের উপর পৃথক ৫টি রঙের তারকা (রঙ ক্রম উপর থেকে কমলা, মেরুণ, বেগুনী, নীল ও আসমানী)।

১০.           সাংগঠনিক তথ্য   ঃ    সংস্থার মূল কাঠামোতে রয়েছে ২৭ সদস্য বিশষ্ট সাধারণ পরিষদ ও ৭ সদস্য

বিশিষ্ট কার্যকরী পরিষদ। এছাড়া ১১ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা পরিষদ ও পৃষ্ঠপোষক রয়েছেন।

১১.            কার্যকরী পরিষদের মেয়াদঃ      ১লা জানুয়ারী ২০০৩ থেকে ৩১শে ডিসেম্বর ২০০৫ ইং।

১২.           সংস্থা প্রধান                ঃ       এস. এম. হারুন অর রশীদ লাল, নির্বাহী পরিচালক, সলিডারিটি।

১৩.           কর্ম-এলাকা                ঃ            সংস্থার নিয়মিত কর্ম-এলাকা (ডিসেম্বর ২০১০ পর্যন্ত তথ্য অনুযায়ী)

জেলা

কুড়িগ্রাম

 

 

 

 

 

 

 

 

লালমনিরহাট

 

রংপুর

জয়পুরহাট

দিনাজপুর

ঢাকা মেট্রাপলিটন সিটি-মোহাম্মদপুর থানা

উপজেলা

কুড়িগ্রাম সদর

নাগেশ্বরী

ভূরুঙ্গামারী

ফুলবাড়ী

রাজারহাট

উলিপুর

চিলমারী

রৌমারী

রাজিবপুর

লালমনিরহাট সদর

আতিমারী

কাউনিয়া

কালাই

দিনাজপুর সদর

 

ইউনিয়ন/পৌরসভা

০৯

০৭

০১

০৫

০৬

০৯

০১

০২

০৬

০৪

০৪

০২

০৩

০১

০১

গ্রাম

১১৫

১৮৮

০৩

৬২

৩১

৪৮

০৭

০৫

৪১

৪৫

৪৫

১০

৩০

১৫

০১

মোটঃ

৬১

৬৪৬

লক্ষ্যঃ  মানব জীবনের সর্বক্ষেত্রে সংহতি প্রদান করা ।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

সিটিজেন চার্টার

 

S= Social Justice  সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা;

O= Organization  অবহেলিত, নিপীড়িত, বঞ্চিত মানবগোষ্ঠী যথা: নারী, শিশু ও পুরুষদের সচেতন ও সংগঠিত করণ;

L= Liberation Conciousness  মুক্তিযুদ্ধের চেতানা ধারণ, গৌরবময় স্মৃতি সংরক্ষণ এবং প্রকৃত ইতিহাস লালন করণ;

I = Intelectuality  আধুনিক গবেষণা, জ্ঞান-বিজ্ঞানের নবতর আবিষ্কার, বুদ্ধিদীপ্ত প্রতিভার বিকাশ এবং সম্পদেও সুষ্ঠু ব্যবহারকে উৎসাহী করণ;

D= Development বিজ্ঞান-প্রযুক্তি সম্পন্ন উন্নয়ন কাঠামো গড়ে তোলা, সম্পদের সৃষ্টি, ন্যায্য বন্টন ও গতিশীল উন্নয়ন নিশ্চিত করণ;

A= Awareness  সামাজিক পশ্চাৎপদতা, কু-সংস্কার ও রাষ্ট্রীয় আইন বিষয়ক অজ্ঞতা কাটিয়ে উঠা;

R= Right  জাসংঘ প্রণীত মানব জবিনের সকল অধিকার, রাষ্ট্র-স্বীকৃত অধিকার ও আইনানুগ বিচারের অধিকার প্রতিষ্ঠা;

I = Impact of Ecological Environment  মানব জাতির অস্তিত্ব রক্ষায় পরিবেশ সুরক্ষা ও বিশ্বশান্তি আন্দোলনসহ সম্ভাব্য বিভিন্ন তৎপরতায় অংশগ্রহণ;

T= Tradition of Culture  যুগপ্রাচীন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য-উৎসব ইত্যাদি ধারণ করা এবং অপসংস্কৃতির পিরীতে জীবনমুখী ধারা অনুসরণ;

Y= Yeomen Survices  মানব সমাজ ও জীবনের যাবতীয় দুর্যোগ-ইস্যু, জাতীয় উন্নয়ন কার্যক্রম জোরদারে ও মানুষের প্রাপ্য নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান।

 

: ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে শিশু অধিকার উন্নয়ন

দরিদ্র, সুবিধা বঞ্চিত ও অবহেলিত ৫,৪০০ জন শ্রমজীবী শিশু (যাদের বয়স ৮ থেকে ১৬ বছর)  - এর মধ্যে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় ১৮০০ জন , নাগেশ্বরী উপজেলায়  ১২০০ জন এবং লালমনিরহাটে  ও আদিতমারীতে ২৪০০ শিশুদের নিয়ে কাজ করছে ।                                                              

উক্ত প্রকল্প যে সব কর্ম কৌশল অবলম্বন করে  ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম কমানোর চেষ্ঠা করে আসছে  সে পদ্ধতি গুলো হচ্ছে, শিশু ফোরাম ও শিশু ফেডারেশনের মাধ্যমে এ্যাডবোকেসী, ক্যাম্পেইন, এ্যাডভোকেসী ও এ্যাওয়ারনেস রেইজিং মিটিং, কর্মশালা, অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা ও বিভিন্ন শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা দানকারী  প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযোগ স্থাপন, দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ, স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি ও কমিউনিটি প্রতিনিধিরসমন্বয়ে মনিটরিং কমিটি, শ্রমজীবী শিশুর শিক্ষার জন্য কমিউনিটি স্পনসরস এবং অংশগ্রহন,  নিয়োগদাতাদের জন্য কোড অব কন্ডাক্ট, সরকারে উন্নয়ন পরিকল্পনায় ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রমের বিষয়টি     অর্ন্তভূক্ত করনে এ্যাডভোকেসী করা।

 

লীফ-৩(সমৃদ্ধি)

                                                                                                                                                                               

সলিডারিটি লীফ-৩(সমৃদ্ধি) প্রকল্পটি ইন্টারকোঅপারেশনের  এর সহায়তায়  কুড়িগ্রাম জেলার  কুড়িগ্রাম সদর ও রাজারহাট উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে দরিদ্র ও অতিদরিদ্র পরিবারের জীবিকার মান উন্ন্য়নে কাজ করে চলছে  । উন্নয়নমুলক কাজগুলির মধ্যে সাংগঠনিক উন্নয়ন,অর্থনৈতিক উন্নয়ন,কারীগরী দÿতার উন্নয়ন,সামাজিক উন্নয়ন ও হত দরিদ্রদেও জন্য উন্নয়নমুলক কাজ । প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে কমিউনিটি পস্নাটফর্ম গঠনের মাধ্যমে জনগনের সম্পৃক্ততায় সংশিস্নষ্ট ওয়ার্ডের উন্নয়নমুলক কর্মপরিকলপনা করে কর্মসূচী বাসত্মবায়ন করে । সংশিস্নষ্ট ওয়ার্ডের সকল পাড়ার কর্ম পরিকল্পনা তৈরির পর ওয়ার্ড লেভেলের উন্য়নমুলক কর্মপরিকল্পনা তৈরি করা হয়  । সেই পরিকল্পনার উপর ভিত্তি করে  সংশিস্নষ্ঠ ওয়ার্ডেও কমিউনিটি ফেসিলিটেটর পাড়া তথা ওয়ার্ডেও কর্মপরিকল্পনা বাসত্মবায়নে  কমিউনিটি পস্নাটফরমকে সহায়তা করে। কারিগরী বিষয়গুলির সমস্যা সমাধান এসপিএ তার অধিনসত্ম এল.এস.পিএর মাধ্যমে সম্পাদন করে । এভাবে সলিডারিটি লীফ-৩(সমৃদ্ধি) প্রকল্প কর্মসূচী বাসত্মবায়ন করে চলছে ।

সলিডারিটি লীফ-৩(সমৃদ্ধি) প্রকল্পের উলেস্নখযোগ্য অর্জন সমূহের মধ্যে ২১ টি উৎপাদন কেন্দ্র তৈরি করেছে যার মধ্যে মিনিগার্মেন্টস্ল(পোষাক তৈরির কারখানা) বাঁশজাত পন্য,মোমবাতি,ব্যাগ তৈরি,চরকায় সুতা তোলা,পেপার ব্যাগ তৈরি,ঞ্যন্ড অ্যামব্রয়ডারি উলেস্নখযোগ্য যাহাতে ৩১৫জন হত দরিদ্র মহিলা ও পুরম্নষ কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে ২০১০ সালে ১২৫০ জন দরিদ ও হত দরিদ্র  মহিলা ও পুরম্নষকে আযবৃদ্ধিমুলক কাজ যেমন,সেলাই,উন্নত জাতের হাস ও মুরগী পালন, ,ছাগল ও ভেরা পালন, গরম্ন মোটাতাজাকরন, দুগ্ধবতী গাভী পালন, মোজাতৈরি,,মৌচাষ  ,বাশজাত পন্য,পেপার ও পস্নাষ্টিকব্যাগ ও বসতভিটায় সবজি চাষ এর প্রশি্ÿন পদান করা হয় । ছাগলের ও মুরগীর জাত উন্নয়নের জন্য ১৫ টি উন্নত জাতের বস্নাক বেঙ্গল পাঠা,১৬০ টি  উন্নত জাতের ককরেল ,৪০০টি উন্নত জাতের খাকি ক্যাম্বল হাসের বাচ্চা, ৩০টি দেশী ছাগী হতদরিদ্র লোকজনকে প্রদান করা হয়। তাছাড়াও কমিউনিটি পস্নাটফরমের উদ্যেগে নদীভাঙ্গন কবলিত ইউনিয়ন পাঁচগাছীতে নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধে ওয়াবদাহাট ক্লাষ্টারের উদ্যেগে দুধকোমর নদীর ভাঙ্গন প্রতিরোধে জনগনকে সঙ্গে নিয়ে বাঁশ সংগ্রহ করে কমিউনিটির সহায়তায় ৩২০০ ফুট বাশের বান্ডাল নদী বÿÿ স্থাপন করে নদীকে মুল শ্রোতধারায় ফিরিয়ে নিয়ে বহু আবাদী জমি ভাঙ্গন তথা যাত্রাপুর হাট ভাঙ্গন রÿায় উলেস্নখ যোগ্য ভহমিকা রেখেছে । বান্ডাল স্থাপনে এলাকার রাজনৈতিক নেতা,বাজার কমিটি,গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ স্বতস্ফহর্তভাবে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে্ । বন্যা থেকে ফসল রÿার জন্য  বন্যা সহনশীল জাতের ধানের প্রবর্তন করেছে ।২০১০ সালে কুড়িগ্রমে পা্রয় ৪.৫ টন বন্যাসহনশীল জাতের ধান বীজ দেয়া হয়েছে এবং বীজ ব্যাংক গঠন করা হয়েছে পাছগাছী ইউনিয়নে ১০ টি যা দিয়ে তাড়া ভবিষ্যতে বন্যার সময় বীজের চাহিদা মেটাতে সÿম হবে দূর্যেগ কবলিত এলাকায় মানুষের রোগবালাই প্রতিরোধের ব্যবস্থা হিসাবে প্রথমিক

 

     

 

চর জীবিকায়ন কর্মসূচী (সিএলপি)

ভূমিকা: বাংলাদেশে দারিদ্র সীমার নীচে থাকা জনগোষ্ঠীর একটি বিরাট অংশ নদী বিধৌত চরাচঞ্চলে বসবাস করে এবং তাদেরকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে চর জীবিকায়ন কর্মসূচী (সিএলপি)। চর জীবিকায়ন কর্মসূচী গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার, পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সার্বিক সহযোগিতায় এবং যুক্তরাজ্য সরকারের ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ইউকেএইড-ডিএফআইডি) এর অর্থায়নে বাসত্মবায়িত দারিদ্র বিমোচন কর্মসূচী। গত সেপ্টেম্বর, ২০১০ মাস থেকে সলিডারিটি ভূরম্নঙ্গামারী উপজেলায় চর জীবিকায়ন কর্মসূচী (সিএলপি) বাসত্মবায়ন করছে।    র্

 

 

ডিসেম্বর/২০১০ পর্যমত্ম অর্জিত কার্যক্রম সমূহ:

o        মানব সম্পদ উন্নয়ন:

উপকারভোগী নির্বাচন ও দল গঠন: সলিডারিটি কর্ম এলাকায় বিভিন্ন অংশগ্রহণমূলক সমীÿা (পিআরএ)’র মাধ্যমে এবং কর্মসূচীর লÿÿত উপকারভোগী নির্বাচনের বৈশিষ্ঠ্যের উপর ভিত্তি করে ৪০০ জন উপকারভোগী নির্বাচন করে। উপকারভোগী নির্বাচনের পর ২০-৩০ জন উপকারভোগীকে (পাশাপাশি বসবাস করে এমন) নিয়ে ১৮টি দল গঠন করা হয়।

সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রম:অবকাঠামো উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি কার্যক্রম চলাকালীন সময়ে কর্মএলাকার যে সব পরিবারে মাটির কাজ করার মত কোন সদস্য ছিল না সে সব পরিবারে সাপ্তাহিক ২০০/- হারে প্রদান করা হয়। এই কার্যক্রমের মেয়াদ ছিল সর্ব নিম্ন চার সপ্তাহ এবং সর্বোচ্চ দশ সপ্তাহ। ৪৯ জনকে এই কার্যক্রমের আওতায় সুবিধা প্রদান করা হয়।

 

প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিচর্যা ও পরিবার পরিকল্পনা প্রকল্প:এই প্রকল্পের আওতায় কর্ম এলাকায় ০৮ টি চর স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও ০৮ জন চর স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োগ করা হয়। প্রতিটি চর স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মাধ্যমে মাসে ০২দিন করে একজন দÿ প্যারামেডিকের সহযোগিতায় প্রকল্প এলাকায় স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়। চর জীবিকায়ন কর্মসূচী ভূক্ত পরিবার সমূহ বিনামূল্যে এবং কমিউনিটির জনগণ স্বল্প মূল্যে স্বাস্থ্য সেবা পেয়ে আসছে।

ভিলেজ সেভিংস এন্ড লোন (ভিএসএল) সমিতি: চর জীবিকায়ন কর্মসূচীর উপকারভোগীদের মাঝে চরাঞ্চলে

  

o        অবকাঠামো উন্নয়ন:

অবকাঠামো উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি:

সেপ্টেম্বর-ডিসেম্বর অত্র এলাকায় মানুষের কর্ম সংস্থানের সুযোগ কম থাকায় তাদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্দেশ্যে অবকাঠামো উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি (বসতভিটা উচুকরন) কার্যক্রম (IEP-Infrastructure & Employment Project)পরিচালনা করা হয়। এই কার্যক্রমের মাধ্যমে কর্মএলাকার ১৫৩টি পরিবারের বাড়ী উচু করা হয় এবং মোট ৫০৯ জন (পুরম্নষ-৩৮০ ও মহিলা-১২৯) শ্রমিক মোট ১০৮৭৮ কর্মদিবস কাজ করার সুয়োগ পায়  যেখানে প্রতিজন প্রতিদিন গড়ে ১৬৫.১৯টাকা করে আয় করে।

 

 

 

o        জীবিকায়ন উন্নয়ন

প্রশিÿণ প্রদান ও সম্পদ হসত্মামত্মর:গরম্ন নির্বাচন ও গবাদী প্রাণী পালনের মৌলিক দÿতা বিষয়ে ৪০০জন উপকারভোগীকে ০১দিনের প্রশিÿণ প্রদান করা হয় এবং ১৭০ জন উপকারভোগীর মাঝে ৪৮টি ষাড় গরম্ন এবং ১২২টি বকন গরম্ন প্রদান করা হয়।

 

বসতবাড়ী ভিত্তিক সব্জি বাগান স্থাপন বিষয়ক প্রশিÿণ ও উপকরন সরবরাহ:বসতভিটায় সব্জি চাষ বিষয়ে ৪০০ জন উপকারভোগীকে প্রশিÿণ প্রদান এবং সার ও শীতকালীন সব্জি বীজ উপকরন হিসাবে সরবরাহ করা হয়।

 

 

গবাদী পশু কৃমিমুক্ত করন:ক্রয়কৃত ১৭০টি গরম্নকে ডিসেম্বর, ২০১১ইং তারিখের মধ্যে লাইভষ্টক সার্ভিস প্রোভাইডারের সহযোগিতায় কৃমিমুক্ত করন ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়।

 

 

o        পণের বাজার উন্নয়ন

চরে ঘাস চাষ: চর এলাকায় গবাদী পশুর খাদ্য খাদ্য একটি বড় সমস্যা। এই সদস্যা উত্তরনের জন্য চর এলাকায় ৫০ জন চাষীর (উপকারভোগী) মাধ্যমে ৭.৫ একর জমিতে জাম্বু ঘাসের বীজ সরবরাহ করা হয়।

লাইভষ্টক সার্ভিস প্রোভাইডার তৈরী: গবাদী পশুর বিভিন্ন ধরনের রোগের চিকিৎসা এবং ভ্যাকসিন প্রদানের জন্য কর্ম এলাকায় দÿতা উন্নয়ন প্রশিÿণ প্রদানের মাধ্যমে ০৫ জন লাইভষ্টক সার্ভিস প্রোভাইডার তৈরী করা হয় যারা বর্তমানে চর এলাকায় গবাদী পশুর বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছে। এই সব সার্ভিস প্রোভাইডারকে উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের সাখে লিংকেজ তৈরী করে দেয়া হয় যাতে তারা সহজে বিভিন্ন ধরনের টিকা উক্ত অফিস থেকে সহজে সংগ্রহ করতে পারে।

 

ভ্যাকমিনেটর তৈরী:মুরগী পালনকে উৎসাহিত করার জন্য কর্ম এলাকায় দÿতা উন্নয়ন প্রশিÿণ প্রদানের মাধ্যমে ০৫ জন ভ্যাকসিনেটর তৈরী করা হয়। ভ্যাকসিনেটরদেও সাথে উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের সাখে লিংকেজ তৈরী করে দেয়া হয় যাতে তারা সহজে বিভিন্ন ধরনের টিকা (ভ্যাকসিন) উক্ত অফিস থেকে সহজে সংগ্রহ করতে পারে।

 

নারীর ক্ষমতায়ন ও অব্যাহত শিক্ষা প্রকল্প।

 

কার্যক্রম উদ্দেশ্যঃ বিভিন্ন প্রশিক্ষন ও সচেতনতা বিষয়ক প্রশিক্ষন নারীদেরকে আরও দক্ষ করে তুলবে এবং নারীরা অর্থনৈতিক ভাবে সমৃদ্ধ হবে। নারীদের মধ্যে নেতৃত্বের বিকাশ ঘটবে ও দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। সমাজে নারীদের মর্যাদা ও গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পাবে।

 

কার্যক্রম সমুহঃ

১.আয়বৃদ্ধিমুলক কর্মকান্ডে অংশ নিয়ে অর্থ উপার্জন করতে পারবে।

২.শিক্ষার হার বৃদ্ধি পাবে।

৩.পারিপাশ্বিক কু সংস্কার থেকে এলাকাবাসী মুক্ত থাকবে।

৪.ব্যক্তিগত ও পারিবারিক পরিস্কার পরিছন্নতা সম্পর্কে সচেতন হবে।

৫.নারী নির্যাতন, বাল্য বিবাহ, যৌতুক,&ঈভ টিজিং কমে যাবে।

৬.সমাজের বিভিন্ন বিচার শালিশ কাজে নারীদের প্রবেশাধিকার বৃদ্ধি পাবে।

     ৭.নারীদের মধ্যে নেতৃত্বের বিকাশ ঘটবে ও দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে।

 

উপকারভোগীঃ

কুড়িগ্রাম জেলার কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছি ইউনিয়নের গোবিন্দপুরগ্রামে মোট নারীর সংখ্যা ১৭২০ জন তার মধ্যে১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়শী  নারীর সংখ্যা ১১২৫ জন। ১০ থেকে ১৭ বছর বয়শী নারীর সংখ্যা ৫৯৫ জন প্রত্যক্ষভাবে কার্যক্রমের সাথে জড়িত হয়ে উপকার পাবে ১০০ জন। পরোক্ষভাবে ৫০০ জন যারমধ্যে পুরুষও থাকতে পারে এবং নিম্ন বর্ণিত উন্নয়ন সাধিত হবে।

 

মানসম্মত শিÿার জন্য প্রচরাভিযান কর্মসূচী ( বিআরবিপি- ডিএ ২

স্কুল ভিত্তিক কর্ম পরিকল্পনা ও শিÿা খাতের বাজেট প্রণয়নের লক্ষ্যে কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় ২০টি স্কুলের সাথে school developmemnt plan কার্যক্রম বাসত্মবায়ন করা হচ্ছে । ২০০৯ সালে উক্ত স্কুলগুলোতে তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী কতটুকু অর্জন করতে পেরেছে  এবং পুনরায় নতুন পরিকল্পনা প্রণয়ন  করে তা বাস্তবায়ন করা হয়েছে । স্কুলভিত্তিক কর্মপরিকল্পনা ও বাজেট প্রণয়ন করা হয়। ২০টি স্কুলের মধ্যে প্রায় সকল স্কুল কমিটির সদস্যগণ তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ভহমিকা রেখেছে। এব্যপারে ইউনিয়ন পরিষদের সাথে যোগাযোগ করে ১০টি স্কুলের ’’স্কুল উন্নয়ন’’ করার জন্য বাজেট অন্তভুক্ত করতে পেরেছে । স্কুলের সকলেই ইউনিয়ন পরিষদের সাথে লবিং প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছে ।

 

03. Promotion of inclusive education.

প্রতিবন্ধী শিশুদেরকে প্রাথমিক শিক্ষায় অর্ন্তভুক্ত করা লক্ষ্যে  বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পর্যায়ের জাতীয় কনভেনশন জাতাীয় নীতিমালায়  প্রতিবন্ধী শিশুদেরকে শিÿায় সম্পৃক্ত করার জন্য অঙ্গিকার বদ্ধ । সরকারের এই নীতিমালা কার্যকর করার জন্য একশনএইড বাংলাদেশের সহযোগিতায় সলিডারিটি ২০০৮ সাল থেকে কুড়িগ্রাম পৌরসভায় ৭৫জন প্রতিবন্ধী শিশুদের সাথে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ প্রতিবন্ধীর ধরন চিহৃিতকরণ সমাজসেবা, এবং প্রতিবন্ধীদে নিয়ে যে সকল প্রতিষ্ঠান কাজ করছে তাদের সাথে  লিংকেজ করানো এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে বিভিন্ন সভা সেমিনারের ব্যবস্থা করা প্রতিবন্ধী শিশু অভিভাবকদের সাথে সচেতনতাবৃদ্ধিমুলক কাজ করা হয়েছে । ২০১০ সালে অন্য কাঠালবাড়ী, হলোখানা, বেলগাছা ৩টি ইউনিয়নের সাথে জরিপ করে প্রতিবন্ধী শিশুর তালিকা করা হয়েছে । স্থানীয় প্রশাসন যাতে নীতিমালা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সচেতন হয়  সে ব্যাপারে বিভিন্ন সভা সেমিনার করা হয়েছে।                                                                                                                                     

 

 

09. SVAW Net work

২০০৯ সালে সলিডারিটি সচিবালয় হিসেবে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ নেটর্ওয়াক এর কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে উক্ত প্রকল্পের আওতায় ২০০৯ সালে ১০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র/ছাত্রী স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটিকে বিভিন্ন ইস্যু যেমনঃ বাল্যবিবাহ, যৌতুক, তালাক, ইভটিজিং, প্রলোভন  নারী নির্যাতন প্রতিরোধের উপর সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সেশন পরিচালনা করা হয়েছে । এ ছাড়াও শিক্ষক, অভিভাবক এবং এসএমসিকে জেন্ডার বিষয়ক প্রশিক্ষণ  পরিচালনা করা হয়েছে ।

http://www.kurigram.gov.bd/sites/default/files/files/www.kurigram.gov.bd/field_office/ab2fe8aa_192f_11e7_83d4_286ed488c766/new_3.JPG

ছবি নাম মোবাইল
এস এম হারুন অর রশীদ লাল ০১৭১৫১৬৯৪৬৯
http://www.kurigram.gov.bd/sites/default/files/files/www.kurigram.gov.bd/officer_list/32123594_18fd_11e7_9461_286ed488c766/saz.jpg একে এম রাশেদুল করিম সাজ্জাদ ০১৭১২৮৯৭৪৫২

ছবি নাম মোবাইল
http://www.kurigram.gov.bd/sites/default/files/files/www.kurigram.gov.bd/officer_list/32123594_18fd_11e7_9461_286ed488c766/saz.jpg একে এম রাশেদুল করিম সাজ্জাদ ০১৭১২৮৯৭৪৫২

ছবি নাম মোবাইল
http://www.kurigram.gov.bd/sites/default/files/files/www.kurigram.gov.bd/staff_list/1e06067e_18fd_11e7_9461_286ed488c766/clip_image002.jpg ফারজানা সুলতানা

দাতা সংস্থার আর্থিক অনুদান অব্যাহত রাখলেও কোন কোন ক্ষেত্রে তার পরিমাণ সংকোচন করেছেন। ২০১2সালে যে সমস্ত দাতা ও সহযোগী সংস্থা তাদের আর্থিক অনুদান অব্যাহত রেখেছেন তাদের তালিকা নিম্নে উল্লেখ করা হলো। 

 

ক্রমিক

দাতা সংস্থহা

প্রকল্প/কর্মসূচী

০১

পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (PKSF)

ঋণ কর্মসূচি

০২

পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (PKSF)

সমৃদ্ধি প্রকল্প  দরিদ্র লক্ষ্যভূক্ত পরিবারের আয় বৃদ্ধির সাথে বিভিন্ন পর্যায়ে প্রশিক্ষণ ও আর্থিক সহায়তা প্রদান।

০৩

মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (MJF)

ঝুঁকিপূর্ন শিশুশ্রম নিরসনে শিশু অধিকার উন্নয়ন প্রকল্প

০৪

এ্যাকশন এইড বাংলাদেশ (AAB)

মানসম্মত শিক্ষার জন্য প্রচারাভিযান

০৫

এ্যাকশন এইড বাংলাদেশ (AAB)

নারী নির্যাতন প্রতিরোধ নেটওয়ার্ক

০৬

আইসি লীফ (HSI)

Samriddhi                            

০৮

ওয়াটার এইড বাংলাদেশ (WAB)

Rural WaSH

০৯

ডিএফআইডি/বাংলাদেশ সরকার (DFID & Govt. of BD)

Char Livelihood Project (CLP)

১০

কেয়ার বাংলাদেশ (CARE-BD)

সৌহার্দ্য কর্মসূচি

১১

বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন

এ্যাকশন রিসার্চ সেন্টারে প্রশিক্ষণ ও ঋণের মাধ্যমে হতদরিদ্র কিশোর/ কিশোরী উন্নয়ন

১২

ইরি/ ষ্ট্রাসা

খাদ্য নিরাপত্তা বলয় সৃষ্টির লক্ষ্যে বীজ, সার ও কৃষক প্রশিক্ষনের মাধ্যমে বন্যা সহনশীল ধান চাষ

১৩

সিসা (ইরি-সিমিট)

’’দক্ষিণ এশিয়ায় সংরক্ষণ কৃষিভিত্তিক দানাদার শস্য নিবিড়ায়নের উদ্যোগ’’।

১৪

সলিডারিটি নিজস্ব অর্থ

 জেন্ডার ও উন্নয়ন, জন্ম ও বিবাহ রেজিষ্ট্রি প্রচার এবং সামাজিক বৈসম্য হ্রাস

১৫

সলিডারিটি নিজস্ব অর্থ

নারী ও শিশু পাচার রোধে প্রচার ও সচেতনতা বৃদ্ধি

১৬

সলিডারিটি নিজস্ব অর্থ

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা

১৭

ব্রেড ফর দ্যা ওয়ার্ল্ড

চরের জন্য 

১৮

সমাজসেবা অধিদপ্তর

দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচি

১৯

সুশাসনের জন্য প্রচারাভিযান-সুপ্র

সুশাসন প্রতিষ্ঠায় এ্যাডভোকেসি কর্মসূচি

২০

দি এশিয়া ফাউন্ডেশন

ভোটার সচেতনতা কার্যক্রম (ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ)

২১

এনজিও ফোরাম

স্যানিটেশন

২৩

কুড়িগ্রাম এনজিও এসোসিয়েশন

নারী-পুরুষের বৈষম্য দূরীকরনে জেন্ডার বিষয়ক কর্মসূচী

সলিডারিটি,

নতুন শহর, কুড়িগ্রাম ।

টেলিফোনঃ ০৫৮১-৬১২২২, ৬১৫৩৮৯

মোবাইলঃ ০১৭১৩১৪৩৯৪৩

ইমেইলঃ solidarity_bd@yahoo.com